বিসিবির সিদ্ধান্তে অভিমানী মুশফিক

0
10

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল হারের বৃত্তেই ঘুরছে। মাঝেমধ্যে জয় আসলেও সেটা বলার মতো না। সবশেষ পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ধবলধোলাই হয়ে এসেছে বাংলাদেশ। এখন সামনে টেস্ট মিশন। এরমধ্যেই মুশফিকুর রহীমকে নিয়ে চলছে বিতর্ক। পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টের পরেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দেশের মাটিতে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের পক্ষে মুশফিককে দলে রাখা হবে কি না এই নিয়েই মূলত আলোচনা-সমালোচনা চলছে। পাকিস্তান সিরিজ থেকে নিরাপত্তার কারণে নিজের নাম সরিয়ে নিয়েছেন মুশফিক। তার সিদ্ধান্তে প্রথমে সাধুবাদ জানালেও টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর দেশে ফিরে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি বলেছেন, এখন থেকে কমপক্ষে ছয় মাস আগে জানাতে হবে যদি কেউ না খেলে। এরকম হলে দল নির্বাচনে ধারবাহিকতা বজায় রাখা যাবে না। দলের প্রধান কোচ ডমিঙ্গোও সুর মিলিয়েছেন পাপনের সঙ্গে। বিসিবি সভাপতির এমন বক্তব্যের পর প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেছেন, মুশফিককে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ফিরতে হলে নিজেকে প্রমাণ করতে হবে। পাকিস্তানের বিপক্ষে দেওয়া টেস্ট দলই থাকবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। বিসিবি সভাপতি-প্রধান নির্বাচকের এমন বক্তব্যের পর মুখ খুলেছেন মুশফিকও। ক্রীড়াবিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজের কাছে অভিমানের সুরে মুশফিক বলেন, ‘আমি সাকিব-তামিমের মতো এত বড় ক্রিকেটার নই। আমি সবসময় নিজেকে একজন ছোট খেলোয়াড় ভাবি। আমি সবসময়ই বলি, পরের সিরিজে সুযোগ পাওয়া নিয়েই আমার ভাবনা। তাই এটা (নির্বাচকদের কথা) আমার জন্য বিব্রতকর ছিল না। বরং তারা যেভাবে ভাবছেন এটা আমার কাছে স্বাভাবিকই মনে হয়েছে।’ চলমান বিসিএলের প্রথম রাউন্ডে ইনজুরির জন্য খেলতে পারেননি মুশফিক। দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে তাকে দেখা যাবে মাঠে। ‘সেরে ওঠার পরপরই আমি বিসিএলে ম্যাচ পাচ্ছি, আমি সেখানে ভালো করার চেষ্টা করব যাতে নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্টের সদস্যরা খুশি হয়ে ওঠেন। তারা যদি মনে করেন আমি দলের শক্তিমত্তা বাড়াতে পারব, তাহলে আমাকে জিম্বাবুয়ে সিরিজের দলে রাখবেন’-নিজেকে প্রমাণ করেই ফিরতে চান মুশফিক। তবে অধিনায়ক মুমিনুল হক মনে করেন মুশফিক অবশ্যই খেলবেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট খেলতে যাওয়ার আগে তিনি বলেন,  ‘এটা তো বলার অপেক্ষা রাখে না মুশফিক ভাই খেলবেন (জিম্বাবুয়ে সিরিজে)। আপনিও জানেন, আমিও জানি, সারা বাংলাদেশ জানে। ক্রিকেট বিশ্বও জানে। দলে মুশফিক ভাইয়ের মতো একজন ব্যাটসম্যান না থাকা বিরাট ক্ষতি…সবাই তো জিনিসটা মিস করবে। একজন অধিনায়কের জন্য এবং সবার জন্য এটা বিরাট ক্ষতি। এটাও নিশ্চিত মুশফিক ভাই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অবশ্যই খেলবেন। বাংলাদেশে যেহেতু খেলা, অবশ্যই খেলবেন।’

LEAVE A REPLY