আ.লীগের শীর্ষ দুই পদে কুড়ির অধিক প্রার্থী

0
10

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী এলাকা কোটালীপাড়া উপজেলায় আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন আগামীকাল বুধবার। সম্মেলন ঘিরে শীর্ষ দুই পদ পেতে ২০ জনেরও বেশি নেতা দৌড়ঝাঁপ দিচ্ছেন। ফলে দুই পদে কে আসছেন তা নিয়েও নেতাকর্মীদের মধ্যে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। যার যার পছন্দের প্রার্থীকে শীর্ষ পদে দেখতে চলছে দফায় দফায় বৈঠক। পোস্টার আর ব্যানারে ছেয়ে গেছে উপজেলা সদর। নির্মাণ করা হয়েছে অসংখ্য তোরণ। উপজেলা আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের উপস্থিত থেকে কমিটি গঠন করবেন। সে কারণে কোটালীপাড়া উপজেলা শহর নতুন সাজে সজ্জিত হচ্ছে। সম্মেলনে কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ প্রত্যাশীরা হলেন-উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি সুভাষ চন্দ্র জয়ধর, সহ-সভাপতি যশোদা জীবন সাহা, ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাস, চারুচন্দ্র গাইন, কোটালীপাড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বিমল কৃষ্ণ বিশ্বাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লক্ষ্মি রানী সরকার, শেখ রাসেল কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ রবীন্দ্রনাথ বাড়ৈ, কাজী মন্টু কলেজের অধ্যক্ষ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বিমলেন্দু সরকার, সদস্য কমল চন্দ্র সেন, জেলা পরিষদ সদস্য দেবদুলাল বসু পল্টু ও রামশীল কলেজের অধ্যক্ষ জয়দেব বালা। সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশীরা হলেন-বর্তমান সাধারণ সম্পাদক এসএম হুমায়ুন কবির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এইচএম অহিদুল ইসলাম, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান হাওলাদার, সাংগঠনিক সম্পাদক আয়নাল হোসেন শেখ, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক আমিনুজ্জামান খান মিলন, গোলাম কিবরিয়া দাড়িয়া ও যুবলীগ নেতা মতিয়ার রহমান হাজরা। এ ছাড়া উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী পদপ্রত্যাশী রাফেজা বেগম, বেবী রহমান, প্রভাষক গুলশান আরা রানী এবং সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশী কৌশল্যা বাগচী ও রেখা বেগম তোড়জোড় চলাচ্ছেন।বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগ কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কোটালীপাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী এলাকা। কমিটি গঠনের ব্যাপারে তিনি যে সিদ্ধান্ত নেবেন, আমারা তা-ই মেনে নেব।

LEAVE A REPLY