দুধ দিয়ে গোসল করানো হলো জাহালমকে

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় বিনা দোষে তিন বছর কারাভোগের পর মুক্তি পেয়েছেন জাহালম। গতকাল রোববার দিবাগত রাত ১টার দিকে কাশিমপুর কারাগার পার্ট-২ থেকে মুক্তি পান তিনি।  মুক্তি পেয়েই কারাফটকে অপেক্ষমাণ জাহালমের বড় ভাইকে নিয়ে বাড়ি যান তিনি। বাড়িতে দুধ দিয়ে তাকে গোসল করানো হয়। ভাই সাহানুর মিয়াকে নিয়ে আজ সোমবার ভোর ৪টায় টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ধুবুরিয়া গ্রামের বাড়িতে পৌঁছান জাহালম। এ সময় আঁধারে মোবাইলের আলোয় জাহালমকে দেখেই ছুটে আসেন মা মনোয়ারা। পরে ছেলের কপালে চুমু দিয়ে আক্ষেপ করে বলেন, ‘কার মাথায় বাড়ি দিছিলাম যে আমার এত বড় সর্বনাশ করছিল।’ এ সময় আহাজারি করেন জাহালমের ভাইবোন ও স্বজনরাও। পরে কারামুক্ত জাহালমকে দুধ দিয়ে গোসল করিয়ে ঘরে তোলেন মা মনোয়ারা। গত ২৮ জানুয়ারি দেশের শীর্ষ স্থানীয় একটি দৈনিকে সোনালী ব্যাংকের প্রায় সাড়ে ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির ৩৩টি মামলায় নিরপরাধ জাহালমের জেলখাটা নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, আবু সালেকের (মূল অপরাধী) বিরুদ্ধে সোনালী ব্যাংকের সাড়ে ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির ৩৩টি মামলা হয়েছে। কিন্তু আবু সালেকের বদলে জেল খাটছেন, আদালতে হাজিরা দিয়ে চলেছেন জাহালম। তিনি পেশায় পাটকল শ্রমিক।