প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে থাই রাজকুমারী

প্রথা ভেঙে প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন থাইল্যান্ডের রাজার বোন, রাজকুমারী উবোলরতœ মাহিদোল। তিনি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার অনুগত দলের হয়ে নির্বাচনে লড়বেন। বিবিসি।২৪ মার্চ সাধারণ নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে পাঁচ বছরের সেনাশাসনের অবসান ঘটিয়ে পুনরায় গণতন্ত্রের পথে হাঁটার সুযোগ করে নিতে পারে থাইল্যান্ড।ঐতিহ্য অনুযায়ী থাই রাজপরিবার রাজনীতির বাইরে থাকে। রাজকুমারী উবোলরত্ন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দিয়ে সেই ঐতিহ্য ভাঙতে যাচ্ছেন। নির্বাচনে প্রার্থিতার জন্য তিনি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার দল থাই রক্ষা চার্ট পার্টির নামে নিবন্ধন করেছেন। এদিকে শুক্রবার সামরিক জান্তাপ্রধান প্রায়ুথ চান ওচাও প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দিয়েছেন।থাইল্যান্ডের জনগণের কাছে রাজপরিবার অত্যন্ত সম্মানিত এবং প্রভাবশালী। বিশ্লেষকদের ধারণা, রাজকুমারীর বিরুদ্ধে প্রার্থী হওয়ায় সাধারণের কাছে সমালোচনার পাত্রও হতে পারেন জান্তাপ্রধান।কে এই উবোলরত্ন : ৬৭ বছরের রাজকুমারী উবোলরত্ন প্রয়াত রাজা ভূমিবল আদুলিয়াদেজের প্রথম সন্তান এবং বর্তমান রাজা মাহা ভাজিরালংকর্নের বড় বোন। ১৯৭২ সালে এক মার্কিনিকে বিয়ে করে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান এবং রাজকীয় উপাধি পরিত্যাগ করেন। ওই স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর তিনি থাইল্যান্ডে ফিরে আসেন এবং আবারও রাজকীয় কর্মকা-ে অংশগ্রহণ শুরু করেন। তিনি বেশ কয়েকটি সিনেমায়ও অভিনয় করেছেন। রাজকুমারীর তিন সন্তানের মধ্যে একজন ২০০৪ সালে সুনামিতে মারা গেছে। অপর দুজন থাইল্যান্ডেই বাস করেন।