ওবায়দুল কাদের শঙ্কামুক্ত নন, নেওয়া হচ্ছে সিঙ্গাপুরে

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল হলেও শঙ্কামুক্ত নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এ কারণে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিঙ্গাপুরে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। আজ রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ তথ্য জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘ওবায়দুল কাদেরকে চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। এনজিওগ্রামের পর চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার হার্টে ব্লক ধরা পড়েছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘মেডিকেল ইস্যুতে ডাক্তারই বলবেন। আমাদের দলের পক্ষ থেকে তাকে সিঙ্গাপুরে নিয়ে যাওয়ার জন্য ব্যবস্থা নিচ্ছি। উন্নত চিকিৎসার জন্য আমরা তাকে সিঙ্গাপুর নিয়ে যাওয়ার জন্য যোগাযোগ করছি। আশা করছি তাকে সহসা সিঙ্গাপুর নিয়ে যেতে পারবো।’ এদিকে সেতুমন্ত্রীর ভাতিজা তমালও জানান, বিকেলের মধ্যে ওবায়দুল কাদেরকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে সিঙ্গাপুর নেওয়া হবে। সেই প্রস্তুতি চলছে। সেই লক্ষ্যে ওবায়দুল কাদেরের স্ত্রী প্রস্তুতি নিচ্ছেন। রোববার সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে বুকে ব্যথা অনুভব করলে সেতুমন্ত্রীকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (বিএসএমএমইউ) ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হয়। সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বলেন, ‘ওবায়দুল কাদেরের তিনটি ব্লক ধরা পরেছে। এরই মধ্যে একটি ব্লক অপসারণ করা হয়েছে। ’ এক ব্রিফিংয়ে বিএসএমএমইউ’র কার্ডিওলজি বিভাগের চেয়ারম্যান সৈয়দ আলী আহসান জানান, ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল, তবে শঙ্কামুক্ত নন। অবশ্য ব্লাড প্রেশার ও হার্টবিট এখন স্বাভাবিক রয়েছে। আগামী ৭২ ঘণ্টা তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। এর আগে সকালের দিকে আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া জানান, ‘উনাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছে। তার এনজিওগ্রাম করা হয়েছে। এনজিওগ্রাম শেষে ওবায়দুল কাদেরের হার্টে ব্লক ধরা পড়েছে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা। এখন ব্লক সারানোর জন্য বোর্ড বসেছে। ’ এদিকে ওবায়দুল কাদেরের সুস্থতার জন্য দেশবাসী ও দলীয় নেতাকর্মীদের কাছে দোয়া কামনা করেছে আওয়ামী লীগ।