ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে ব্রিফিং দুপুরে

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। এখন তিনি আগের চেয়ে ভালো। আজ সোমবার দুপুর ১টার আগে তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবেন চিকিৎসকরা। সর্বশেষ খবরে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের উপাচার্য ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া জানান, ‘ওবায়দুল কাদেরের অবস্থা এখন আগের চেয়ে ভালো। তিনি চোখ খুলতে পারছেন। তবে কথা বলতে বা প্রতিক্রিয়া জানাতে পারছেন না। তাকে সুস্থ করে তুলতে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি।’ এদিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে নিতে একটি এয়ার অ্যাম্বুলেন্স গতকাল রোববার রাতেই ঢাকায় পৌঁছায়। সেখান থেকে সিঙ্গাপুর মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের দুজন চিকিৎসক ও দুজন সেবিকা এসেছেন। এ প্রসঙ্গে বিএসএমএমইউর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া জানান, ‌‘সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের দুজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক সন্ধ্যায় ঢাকায় আসার পরপরই ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা নিবিড়ভাবে অবলোকন করেন। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থা বিদেশে নেয়ার উপযোগী না হওয়ায় তাকে বিএসএমএমইউতে রেখেই চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়ার তারা সিদ্ধান্ত নেন। এ ছাড়া এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে আইসিইউ সাপোর্ট না থাকায় আমরাও তাকে এ অবস্থায় স্থানান্তরের মত দিতে পারি না।’তিনি আরও বলেন, ‘সিঙ্গাপুরের প্রতিনিধি দল ঢাকায় অবস্থান করছেন। আজ সকাল ১০টায় তারা আবারও হাসপাতালে আসবেন। ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে তাকে সিঙ্গাপুরে নেওয়া হতে পারে।’ আজ দুপুর ১টার আগে কাদেরের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হবে বলেও জানান এই চিকিৎসক। রোববার সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে বুকে ব্যথা অনুভব করলে সেতুমন্ত্রীকে ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ভেন্টিলেশনে নেওয়া হয়।